পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল
শিরোনাম :
Logo ময়মনসিংহ বিআরটিএ টাকা ছাড়া কাজ করেন না সহকারী পরিচালক এস এম ওয়াজেদ, সেবাগ্রহীতাদের অসন্তোষ Logo বগুড়ায় দুর্বৃত্তের ছোড়া গুলিতে গৃহবধু আহত Logo বাউফলে নির্বাচনী সহিংসতা, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা ভাংচুর, ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে জখম।  Logo সান্তাহারে ট্রেনে পৃথক স্থানে কাটা পড়ে দুই যুবকের মৃত্য Logo বগুড় সান্তাহারে এক স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা Logo জন্মগত জটিল রোগে ভুগছেন শিশু কাওসার, অর্থের অভাবে থেমে আছে চিকিৎসা। Logo বিআরটিএ’র পরিদর্শক আরিফুলের অবৈধ সম্পদের পাহার, দুদকের মামলা, এখনো বহাল তবিয়তে Logo বেবিচকের ধনকুবের খ্যাত শত কোটি টাকার মালিক সুব্রত চন্দ্র দে। দুদকে অভিযোগে Logo বিআরটিএ’র পরিদর্শক আরিফুলের অবৈধ সম্পদের পাহার, দুদকের মামলা, এখনো বহাল তবিয়তে Logo এতদিন কি তাহলে বিআরটিএ ঘুমিয়ে ছিল? প্রশ্ন কাদেরের

পাটগ্রাম তিস্তার চড়ে, বাড়ছে গমের চাষ

রশিদুল ইসলাম পাটগ্রাম প্রতিনিধি :

পাটগ্রাম উপজেলাধীন দহগ্রাম ইউনিয়ন তিস্তার চরাঞ্চলের চাষিরা গম চাষ শুরু করেছেন।এবং পাল্টে গেছে চরাঞ্চল অতীত চিত্র। বেশ খুশি তিস্তার পাড়ে কৃষক পরিবার।

দহগ্রাম ইউনিয়নের তিস্তার চরাঞ্চলের বিভিন্ন গ্রাম ঘুরে কৃষকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, কম খরচে অধিক লাভ হওয়ায় গম চাষে আগ্রহ বাড়ছে । গত বছরের তুলনায় এবার তিস্তার নদীতে জেগে ওঠা চরে পলি জমায় গম চাষের সমারোহ, চরজুড়ে শোভা পাচ্ছে সোনালী গমের শীষ। ইতোমধ্যে গম পাকতেও শুরু করছে।

এক দশক আগেও উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে ব্যাপক ভাবে গমের চাষ হতো। কিন্তু বর্তমানে কৃষক ভুট্টা চাষের দিকে বেশি ঝুঁকেছে। যার ফলে দিন দিন হারিয়ে যাচ্ছে গমের চাষ। চলতি বছরে পাটগ্রামে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি জমিতে গমের চাষ হয়েছে। ফলন ভালো হওয়ায় কৃষকের মুখে হাসি ফুটেছে।

এদিকে দহগ্রাম সৈয়দপাড়া এলাকার গমচাষি সফিয়ার রহমান বলেন, কৃষি বিভাগের কর্মকর্তারা আমাদের গম চাষে উদ্বুদ্ধ করাসহ সঠিক সময়ে প্রণোদনা হিসেবে উন্নত জাতের বিনামূল্যে গম বীজ ও সার প্রদান করায় আমরা গম চাষ করেছি।এবং ভালো চাষ করতে সক্ষম হয়েছি।

পাটগ্রাম কৃষি অফিস থেকে জানা যায়, আবহাওয়া অনুকূল ও আধুনিক প্রযুক্তিতে কৃষকদের আগ্রহ সৃষ্টি হওয়ায় স্বল্প খরচে যথা সময়ে গমের বাম্পার ফলন হয়েছে। গত বছর চেয়ে এবার বছর ৩৮ হেক্টর জমিতে প্রায় ১৬০ মেট্রিক টন গম উৎপাদন হলেও এ বছর তা বেড়ে ৫২ হেক্টর জমিতে ২৩৪ মেট্রিক টন গম উৎপাদন হবে জানিয়েছে এ দপ্তর।দহগ্রাম মহিমপাড়া এলাকার গমচাষি আলম বলেন, গত বছর গমের ভালো ফলন ও দাম পাওয়ায় এবছর বেশি জমিতে গম চাষ হয়েছে। এছাড়া গম চাষে খরচ কম, গতবারের চেয়ে এবার ফলন বেশি হযেছে।

পাটগ্রাম উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আব্দুল গাফ্ফার বলেন, আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় গমের ফলন চলতি মৌসুমে অত্যন্ত ভালো ফলন হয়েছে।

Tag :
জনপ্রিয় সংবাদ

ময়মনসিংহ বিআরটিএ টাকা ছাড়া কাজ করেন না সহকারী পরিচালক এস এম ওয়াজেদ, সেবাগ্রহীতাদের অসন্তোষ

পাটগ্রাম তিস্তার চড়ে, বাড়ছে গমের চাষ

আপডেট টাইম : ০৩:৪৯:০১ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ এপ্রিল ২০২৪

রশিদুল ইসলাম পাটগ্রাম প্রতিনিধি :

পাটগ্রাম উপজেলাধীন দহগ্রাম ইউনিয়ন তিস্তার চরাঞ্চলের চাষিরা গম চাষ শুরু করেছেন।এবং পাল্টে গেছে চরাঞ্চল অতীত চিত্র। বেশ খুশি তিস্তার পাড়ে কৃষক পরিবার।

দহগ্রাম ইউনিয়নের তিস্তার চরাঞ্চলের বিভিন্ন গ্রাম ঘুরে কৃষকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, কম খরচে অধিক লাভ হওয়ায় গম চাষে আগ্রহ বাড়ছে । গত বছরের তুলনায় এবার তিস্তার নদীতে জেগে ওঠা চরে পলি জমায় গম চাষের সমারোহ, চরজুড়ে শোভা পাচ্ছে সোনালী গমের শীষ। ইতোমধ্যে গম পাকতেও শুরু করছে।

এক দশক আগেও উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে ব্যাপক ভাবে গমের চাষ হতো। কিন্তু বর্তমানে কৃষক ভুট্টা চাষের দিকে বেশি ঝুঁকেছে। যার ফলে দিন দিন হারিয়ে যাচ্ছে গমের চাষ। চলতি বছরে পাটগ্রামে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি জমিতে গমের চাষ হয়েছে। ফলন ভালো হওয়ায় কৃষকের মুখে হাসি ফুটেছে।

এদিকে দহগ্রাম সৈয়দপাড়া এলাকার গমচাষি সফিয়ার রহমান বলেন, কৃষি বিভাগের কর্মকর্তারা আমাদের গম চাষে উদ্বুদ্ধ করাসহ সঠিক সময়ে প্রণোদনা হিসেবে উন্নত জাতের বিনামূল্যে গম বীজ ও সার প্রদান করায় আমরা গম চাষ করেছি।এবং ভালো চাষ করতে সক্ষম হয়েছি।

পাটগ্রাম কৃষি অফিস থেকে জানা যায়, আবহাওয়া অনুকূল ও আধুনিক প্রযুক্তিতে কৃষকদের আগ্রহ সৃষ্টি হওয়ায় স্বল্প খরচে যথা সময়ে গমের বাম্পার ফলন হয়েছে। গত বছর চেয়ে এবার বছর ৩৮ হেক্টর জমিতে প্রায় ১৬০ মেট্রিক টন গম উৎপাদন হলেও এ বছর তা বেড়ে ৫২ হেক্টর জমিতে ২৩৪ মেট্রিক টন গম উৎপাদন হবে জানিয়েছে এ দপ্তর।দহগ্রাম মহিমপাড়া এলাকার গমচাষি আলম বলেন, গত বছর গমের ভালো ফলন ও দাম পাওয়ায় এবছর বেশি জমিতে গম চাষ হয়েছে। এছাড়া গম চাষে খরচ কম, গতবারের চেয়ে এবার ফলন বেশি হযেছে।

পাটগ্রাম উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আব্দুল গাফ্ফার বলেন, আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় গমের ফলন চলতি মৌসুমে অত্যন্ত ভালো ফলন হয়েছে।