পূর্বাহ্ন, সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ , সরকার নিবন্ধিত নিউজ পোর্টাল
শিরোনাম :
Logo বগুড়ায় প্রকাশ্যে ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা Logo কুমিল্লায় এনজিও সংস্থা দিয়া’র কর্মীদের প্রশিক্ষণ সভা অনুষ্ঠিত। Logo বগুড়া আদমদীঘিতে প্রয়াত সাত সাংবাদিক স্বরণে সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত Logo অতিরিক্ত ডিআইজি হারালেন মেয়েকে স্ত্রীর মৃত্যুর পর বিয়ে করেননি, মেয়ের শোক সইবেন কী করে? Logo জেলা প্রশাসক ফুটবল টুর্নামেন্ট ২০২৪ ইং ফাইনালে লালমনিরহাট পৌরসভা বিজয়ী Logo বগড়া আদমদীঘিতে কৃষকরা ব্যস্ত সময় পার করছে বোরো বীজ রোপণে Logo আধুনিক সেনাবাহিনী গড়ে তুলতে বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী Logo বেইলি রোডে আগুন: স্ত্রী-সন্তানসহ কাস্টমস কর্মকর্তার মৃত্যু Logo বিপিএলের শিরোপা গেলো বরিশালের ঘরে Logo বাংলাদেশ পুলিশ পদক (বিপিএম) সেবায় ভূষিত হয়েছেন আদমদিঘীর সন্তান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাসুদ আলম।

অবশেষে বিশাল জয় পেলেন নওয়াজ

ডেস্ক: অবশেষে বিশাল জয় পেয়েছেন পাকিস্তান মুসলিম লিগ নওয়াজের সুপ্রিমো এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ। জাতীয় পার্লামেন্ট নির্বাচনে একটি আসনে শোচনীয়ভাবে হারলেও অপরটিতে বিপুলভাবে জয়ী হয়েছেন।

আজ শুক্রবার ঘোষিত ফলাফলে দেখা যায়, নওয়াজ শরিফ এনএ ১৩০ আসনে বিপুলভাবে জয়ী হয়েছেন। তিনি ১,৭১,০২৪ ভোট পেয়ে জিতেছেন। এই আসনে ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) পার্টির সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী ড. ইয়াসমিন রশিদ পরাজিত হয়েছেন ১,১৫,০৪৩ ভোট পেয়ে।

এদিকে নওয়াজের মেয়ে মরিয়ম নওয়াজও জয়ী হয়েছেন। তিনি এনএ ১১৯ আসন থেকে ৮৩,৮৫৫ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন।

এখন পর্যন্ত বেসরকারিভাবে যে ৩৭টি আসনের ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে, তাতে দেখা যাচ্ছে যে পিএমএল-এন ১৪টিতে স্বতন্ত্র (তাদের কয়েকজন পিটিআই সদস্য) ১২টিতে, বিলওয়াল ভুট্টো-জারদারির পিপিপি ৯টিতে জয়ী হয়েছে। এছাড়া অন্যান্য দল থেকে নির্বাচিত হয়েছেন দুজন।

পাকিস্তানে সরকার গঠন করার জন্য অন্তত ১৩৩টি আসনের প্রয়োজন। ৩৩৬ আসনবিশিষ্ট পাকিস্তান পার্লামেন্টে গতকাল ২৬৫টি আসনে ভোটগ্রহণ হয়েছে। একটি আসনে নির্বাচন স্থগিত রাখা হয়েছে। বাকি ৭০ আসন সংরক্ষিত। এছাড়া চারটি প্রাদেশিক পরিষদের নির্বাচনও গতকাল হয়েছে।

নওয়াজ শরিফ হেরে গেছেন একটি আসনে
পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী এবং পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজের (পিএমএল-এন) প্রধান নওয়াজ শরিফ জাতীয় পরিষদে মানসেরা আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর কাছে শোচনীয়ভাবে হেরে গেছেন। তিনি অবশ্য দুটি আসন থেকে নির্বাচনে লড়ছেন। অপর আসনে তিনি জয়ী হন।

জাতীয় পরিষদের ১৫ নম্বর আসনের বেসরকারি ফলাফলে দেখা যায়, শাহজাদা ৭৪,৭১৩ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। আর নওয়াজ পেয়েছেন ৬৩,০৫৪ ভোট।

শাহবাজ শরিফ জিতেছেন
পিএমএল-এন সভাপতি এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ ফেডারেল এবং প্রাদেশিক উভয় আসনেই জয়ী হয়েছেন। বেসরকারি ফলাফলে দেখা যায়, তিনি লাহোরের এনএ-১২৩ আসন থেকে ৬৩,৯৫৩ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছনে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা স্বতন্ত্র প্রার্থী পেয়েছেন ৪৮,৪৮৬ ভোট।

একইভাবে পাঞ্জাব প্রাদেশিক পরিষদের নির্বাচনে তিনি ৩৮,৬৪২ ভোটে জয়ী হয়েছেন। এখানে তার প্রতিদ্বন্দ্বী চৌধুরী ইউসুফ আলী পেয়েছেন ২৩,৮৪৭ ভোট।

হামজা শাহবাজও জয়ী হয়েছেন
শাহবাজ শরিফের ছেলে হামজা শাহবাজও জয়ী হয়েছেন। পাঞ্জাবের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী হামজা ১,০৫,৯৬০ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী আলিয়া হামজা পেয়েছেন ১,০০,৮০৩ ভোট।

Tag :
জনপ্রিয় সংবাদ

বগুড়ায় প্রকাশ্যে ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা

অবশেষে বিশাল জয় পেলেন নওয়াজ

আপডেট টাইম : ০৭:৫০:২৫ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

ডেস্ক: অবশেষে বিশাল জয় পেয়েছেন পাকিস্তান মুসলিম লিগ নওয়াজের সুপ্রিমো এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ। জাতীয় পার্লামেন্ট নির্বাচনে একটি আসনে শোচনীয়ভাবে হারলেও অপরটিতে বিপুলভাবে জয়ী হয়েছেন।

আজ শুক্রবার ঘোষিত ফলাফলে দেখা যায়, নওয়াজ শরিফ এনএ ১৩০ আসনে বিপুলভাবে জয়ী হয়েছেন। তিনি ১,৭১,০২৪ ভোট পেয়ে জিতেছেন। এই আসনে ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) পার্টির সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী ড. ইয়াসমিন রশিদ পরাজিত হয়েছেন ১,১৫,০৪৩ ভোট পেয়ে।

এদিকে নওয়াজের মেয়ে মরিয়ম নওয়াজও জয়ী হয়েছেন। তিনি এনএ ১১৯ আসন থেকে ৮৩,৮৫৫ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন।

এখন পর্যন্ত বেসরকারিভাবে যে ৩৭টি আসনের ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে, তাতে দেখা যাচ্ছে যে পিএমএল-এন ১৪টিতে স্বতন্ত্র (তাদের কয়েকজন পিটিআই সদস্য) ১২টিতে, বিলওয়াল ভুট্টো-জারদারির পিপিপি ৯টিতে জয়ী হয়েছে। এছাড়া অন্যান্য দল থেকে নির্বাচিত হয়েছেন দুজন।

পাকিস্তানে সরকার গঠন করার জন্য অন্তত ১৩৩টি আসনের প্রয়োজন। ৩৩৬ আসনবিশিষ্ট পাকিস্তান পার্লামেন্টে গতকাল ২৬৫টি আসনে ভোটগ্রহণ হয়েছে। একটি আসনে নির্বাচন স্থগিত রাখা হয়েছে। বাকি ৭০ আসন সংরক্ষিত। এছাড়া চারটি প্রাদেশিক পরিষদের নির্বাচনও গতকাল হয়েছে।

নওয়াজ শরিফ হেরে গেছেন একটি আসনে
পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী এবং পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজের (পিএমএল-এন) প্রধান নওয়াজ শরিফ জাতীয় পরিষদে মানসেরা আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর কাছে শোচনীয়ভাবে হেরে গেছেন। তিনি অবশ্য দুটি আসন থেকে নির্বাচনে লড়ছেন। অপর আসনে তিনি জয়ী হন।

জাতীয় পরিষদের ১৫ নম্বর আসনের বেসরকারি ফলাফলে দেখা যায়, শাহজাদা ৭৪,৭১৩ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। আর নওয়াজ পেয়েছেন ৬৩,০৫৪ ভোট।

শাহবাজ শরিফ জিতেছেন
পিএমএল-এন সভাপতি এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ ফেডারেল এবং প্রাদেশিক উভয় আসনেই জয়ী হয়েছেন। বেসরকারি ফলাফলে দেখা যায়, তিনি লাহোরের এনএ-১২৩ আসন থেকে ৬৩,৯৫৩ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছনে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা স্বতন্ত্র প্রার্থী পেয়েছেন ৪৮,৪৮৬ ভোট।

একইভাবে পাঞ্জাব প্রাদেশিক পরিষদের নির্বাচনে তিনি ৩৮,৬৪২ ভোটে জয়ী হয়েছেন। এখানে তার প্রতিদ্বন্দ্বী চৌধুরী ইউসুফ আলী পেয়েছেন ২৩,৮৪৭ ভোট।

হামজা শাহবাজও জয়ী হয়েছেন
শাহবাজ শরিফের ছেলে হামজা শাহবাজও জয়ী হয়েছেন। পাঞ্জাবের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী হামজা ১,০৫,৯৬০ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী আলিয়া হামজা পেয়েছেন ১,০০,৮০৩ ভোট।